,

১২ তম ১০০ তামিম ইকবালের – দৈনিক জনসংযোগ

১২ তম ১০০ তামিম ইকবালের

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাইগার কাপ্তান মাশরাফি বিন মর্তুজা।

বাংলাদেশ স্কোর : ২০০/৩ ৩৭ ওভারে)

সবশেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন ২০১৮ সালের জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১০৩ রান করেছিলেন । প্রায় দেড় বছরের বেশি সময় ধরে ওয়ানডে ফরম্যাটে সেঞ্চুরির দেখা পাচ্ছিলেন না দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল খান।

সেঞ্চুরির খরায় থাকা তামিমের সমালোচনা হয়েছে অনেক। দেশের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের মালিক তামিম অবশেষে সেই খরা কাটালেন।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এটি তার দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। আর  ওয়ানডে ক্যারিয়ারের তামিমের ১২তম সেঞ্চুরি।বাংলাদেশের মাটিতে আজকের সেঞ্চুরিটি তামিমের ষষ্ঠ শতক।

এর আগে, প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সাত হাজার রানের ক্লাবেও প্রবেশ করেছেন তামিম। শন উইলিয়ামসের বলটা অফ সাইডে ঠেলে দিয়ে পেলেন সেঞ্চুরি। ১০৫ বলে পেলেন তিন অংক, বলতে গেলে তেমন কোনো উদযাপনই করলেন না।

আক্রমণাত্মক শুরু তামিমের 

প্রথম টেস্টে ২৪ রানে রিভিউ নষ্ট করে ফিরেছিলেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল খান। রান করতে না পারায় সমালোচনাও শুনতে হয়েছে তাকে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মকভাবে ব্যাট করে যাচ্ছেন। প্রথম ছয় ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৪ রান; যেখানে তামিমের একার রান ২৪।

৩৮তম ফিফটি করে ফিরলেন মুশি 

মাধেভেরকে উড়িয়ে মারিতে গিয়েছিলেন কাউ কর্নার দিয়ে, ডাউন দ্য উইকেটেও এসেছিলেন। কিন্তু টাইমিং হলো না ঠিকমতো। লং অনের বাউন্ডারিতে ভালো একটা ক্যাচ ধরলেন মুতুম্বামি। ৫০ বলে ৫৫ রান করে ফিরলেন মুশফিক।

তামিমের সঙ্গে ৮৭ রানের মূল্যবান জুটি গড়েছিলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। এর আগে, মুশি ৪৭ বলে পেলেন ফিফটি। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের যা ৩৮তম। আর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অষ্টম।

এই রিপোর্ট লেখা অবধি বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৯ ওভারে ৩ উইকেটে ১৭৬ রান। উইকেটে আছেন, তামিম ইকবাল (৯৩) এবং মাহমুদউল্লাহ (৯)।

শুরুতেই রান আউটের শিকার লিটন 

এই আউটের পর নিজের কপালকে ছাড়া আর কাকে দোষ দেবেন লিটন কুমার দাস! তামিম ইকবালের স্ট্রেইট ড্রাইভটা গেল সোজা চার্ল মুম্বার দিকে, তবে সেটি ধরতে ব্যর্থ হলেন এই পেসার। তার ডান কবজির পর বাঁ পায়ে লেগে দিক পরিবর্তন করল বলটা, যেটি পরে গিয়ে আঘাত হানল স্ট্যাম্পে। বেশ কিছুটা এগিয়ে থাকা লিটন চেষ্টা করলেও সময় মতো ফিরতে পারেননি। ভাঙে ৩৮ রানের উদ্বোধনী জুটি। দুই চারে ১৪ বলে ৯ রান করেন লিটন।

এই রিপোর্ট লেখা অবধি বাংলাদেশের সংগ্রহ ৯ ওভারে ১ উইকেটে ৫৯ রান। উইকেটে আছেন, তামিম ইকবাল (৪৪) এবং নাজমুল হোসেন শান্ত (৫)।

বীভৎস রান আউটে ফিরলেন শান্ত

অনেকদিন পর ওয়ানডে দলে সুযোগ পেয়ে প্রথম ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরতে না পারা নাজমুল হোসেন শান্ত দ্বিতীয় ম্যাচেও হয়েছেন ব্যর্থ। তবে এবার তিনি বীভৎস এক রান আউটের শিকার হয়েছেন। বললে ভুল হবে না নিজের উইকেটটা স্যাক্রিফাইসই করেছেন শান্ত।

ভুল বুঝাবুঝিতে উইকেটটি হারায় বাংলাদেশ। ১১তম ওভারের দ্বিতীয় বল ফাইন লেগে ঠেলে দেন শান্ত। তবে রানের জন্য দৌড় দেননি কিন্তু অপর প্রান্তে থাকা তামিম দৌড়ে চলে যান স্ট্রাইক প্রান্তে। অগত্যা রান নেওয়ার জন্য উইকেট ছাড়ে শান্ত। কিন্তু তখন দেরি হয়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত দুজনের ভুল বোঝাবুঝিতে ফিরতে হয় শান্তকে। দলীয় মাত্র ৬৫ রানে ৯ রান করা শান্তকে ফিরতে হয়।

দুই পরিবর্তন নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ 

এ দিকে, বাংলাদেশের একাদশে আজ এসেছে দুই পরিবর্তন। পেস অলরাউন্ডার সাইফের জায়গাতে ফিরেছেন শফিউল ইসলাম এবং কাটার মাস্টার মুস্তাফিজকে বাদ দিয়ে আল আমিনকে নেওয়া হয়েছে একাদশে।

জিম্বাবুয়ের একাদশেও এসেছে দুই পরিবর্তন। আগের ম্যাচে অধিনায়কের দায়িত্বে থাকা চামু চিবাবার জায়গাতে আজ দায়িত্ব সামলাবেন শন উইলিয়ামস। আর ক্রেইগ আরভিনের জায়গাতে নেওয়া হয়েছে  চার্ল্টন টিশুমাকে।

জিম্বাবুয়ের একাদশ : টিনাসে কামুনুকামে, রেজিস চাকাভা, শন উইলিয়ামস (অধিনায়ক), ব্রেন্ডন টেইলর, উইসলে মাধেভের, সিকান্দার রাজা,  রিচমন্ড মুতুম্বামি  (উইকেটরক্ষক),  টিনোটেন্ডা মুতোম্বোদজি, ডোনাল্ড তিরিপানো, চার্ল মুম্বা, চার্ল্টন টিশুমা।

বাংলাদেশের একাদশ : তামিম ইকবাল, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), আল আমীন ও শফিউল ইসলাম।